সূর্য না ওঠা এবং না ডোবার দেশ


গ্রীষ্মকালে ফিনল্যান্ডের দিন অনেক বড়। অবাক করার খবর হলো এবার ফিনল্যান্ডের উত্তরাংশের শহর ‘উতস্ইয়কি’ এর সর্ব উত্তরের ‘নুয়রগাম’ গ্রামে সূর্যোদয় হয়েছে মে মাসের ১৫ তারিখের রাত্র একটা ৩২ মিনিটে। আর সূর্যাস্ত হবে আগামী ২৯ জুলাই রাত্র ১২টা ৪২ মিনিটে। সুতরাং ফিনল্যান্ডের উত্তরাঞ্চলের শহর উতস্ইয়কির আশপাশ কোনো এলাকাতেই আড়াই মাস সূর্য কখনোই সম্পূর্ণভাবে অস্ত যায় না। শীতকালে এর ঠিক উল্টো অভিজ্ঞতার মুখোমুখি হতে হয় এ অঞ্চলের অধিবাসীদের। কারণ শীতকালে আড়াই মাস সারাক্ষণই রাত থাকে; সূর্যের দেখাই মিলে না।a-s1 এটা কেন হয়? হ্যাঁ, যারা পৃথিবীর দুই মেরুতে বসবাস করেন তাদের সবার জন্যই দিন-রাতের হিসাবটা আলাদা। এখানে দিন অথবা রাত খুব দীর্ঘ হয়। এমনও হয় টানা ছয় মাস ঝলমলে দিন। সূর্য শুধু ২৪ ঘণ্টা এক দিগন্ত থেকে আরেক দিগন্তে যায় কিন্তু কখনোই অস্ত যায় না। আবার ছয় মাস সূর্যের কোনো দেখাই মেলে না। ফিনল্যান্ড, নরওয়ে, ডেনমার্ক (গ্রিনল্যান্ড), সুইডেন, রাশিয়া, আইসল্যান্ড, কানাডা এবং যুক্তরাষ্ট্রের আলাস্কার কিছু অংশে গ্রীষ্মকালের একটি বড় সময় সূর্য অস্তমিত হয় না, যাকে নিশীথ সূর্য (Midnight Sun) নামে অভিহিত করা হয়। কুমেরু বৃত্তের (Antarctic Circle) দক্ষিণ মেরুতে কোনো স্থায়ী বসতি না থাকায় সুমেরু বৃত্তের (Arctic Circle) উত্তরাঞ্চলের জনসাধারণ সীমিত আকারে এ অভিজ্ঞতার মুখোমুখি হন। বস্তুত ফিনল্যান্ডের একেবারে উত্তরপ্রান্তে (Northernmost point) ৭০ দিনেরও বেশি সময় ধরে সূর্য অস্তমিত হয় না। যেটা শুরুতেই বলেছি। অপর দিকে ইউরোপের সর্ব উত্তর প্রান্ত নরওয়ের স্বালবার্ড (Svalbard) অঞ্চলে ১৯ এপ্রিল থেকে ২৩ আগস্ট পর্যন্ত চার মাসের বেশি সময় সূর্যাস্ত হয় না। কোনো কোনো জায়গায় একটানা ছয় মাস পর্যন্ত সূর্য দৃশ্যমান থাকে। সুইডেনের সবচেয়ে উত্তরের শহর কিরুনায় গ্রীষ্মকালে প্রায় দেড় মাস সূর্যাস্তই হয় না। আর্কটিক সার্কেল বা উত্তর মেরু বলয়ের ভেতরে অবস্থিত এ শহর।a-s2 উত্তর মেরু ও দক্ষিণ মেরু অঞ্চলের অনেকটা অংশ জুড়েই গ্রীষ্মকালের একটা নির্দিষ্ট সময় আক্ষরিক অর্থেই সূর্য ডুবতে দেখা যায় না। তেমনি শীতকালেরও একটা নির্দিষ্ট সময় ধরে সূর্য উঠতে দেখা যায় না। গ্রীষ্মকালের এ সময়টাকে ‘মেরুদিন’ এবং শীতকালের এ সময়টাকে ‘মেরুরাত্রি’ বলা হয়ে থাকে। স্ক্যান্ডেনেভিয়া অঞ্চলের দেশ সুইডেনের কিরুনা শহর আর্কটিক সার্কেল বা উত্তর মেরু বলয়ের আরও ১৪৫ কিলোমিটার ভেতরে। এখানে গ্রীষ্মকালেও পর্বত চূড়াগুলো সাদা বরফে ঢাকা থাকে। পুরো গ্রীষ্মকালেই রাতের আকাশ থাকে অনেকটাই আলোকিত, পুরো শীতকালে দিনের আলোর দেখা মেলা ভার।


Reactions

Post a Comment

1 Comments

Emoji
(y)
:)
:(
hihi
:-)
:D
=D
:-d
;(
;-(
@-)
:P
:o
:>)
(o)
:p
(p)
:-s
(m)
8-)
:-t
:-b
b-(
:-#
=p~
x-)
(k)